free web tracker

শেয়ার করুন:

দি ঢাকা টাইমস্‌ ডেস্ক ॥ সুস্বাদু খাবার আর মেদভুঁড়ি অনেকের কাছে রীতিমত আতংকের নাম। কেননা তারা সুস্বাদু খাবার খেতে ভয় পান এরফলে শরীরের মেদ না বেড়ে যায়। কিন্তু এর বাইরেও কিছু খাবার রয়েছে যা একে তো সুস্বাদু তার উপর আপনার শরীরের মেদ বাড়াবে না।


delicious-designed-food-21

আজ আমরা দি ঢাকা টাইমসের পাঠকদের জন্য এমনি কিছু খাবারের কথা তুলে ধরবো।

১. পপকর্ন

আপনি যদি শরীরের মেদ নিয়ে বেশি চিন্তিত হয়ে থাকেন। তবে আপনার প্রয়োজন হাই-ফাইবার বা আঁশযুক্ত খাবার। বিশেষজ্ঞরা বলেন দিনে অন্তত ২৫ থেকে ৩৫ গ্রাম আশযুক্ত খাবার খাওয়া যেতে পারে। এই সকল উচ্চ আঁশযুক্ত খাবারের মধ্যে রয়েছে পপকর্ন। পপকর্ন খেতে পারেন নির্ভয়ে এটি আপনার শরীরের মেদ বৃদ্ধি করবে না। তবে এই ক্ষেত্রে ঘিয়ে ভাজা পপকর্ন বর্জন করার চেষ্টা করুন।

২. কালো চকলেট

Eating-dark-chocolate

কালো চকলেটে রয়েছে মনোস্যাচুরেটেড ফ্যাট বা চর্বি। এই ধরনের চর্বিকে বলা হয় ভালো চর্বি কেননা এটি শরীরের
মধ্যে বাড়তি চর্বির সৃষ্টি করে না। এটি একটি উচ্চ অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট হিসেবে বেশ পরিচিত। ফলে যাদের মেদভীতি আছে তারা নির্ভয়ে এই চকলেট খেতে পারেন।

৩. যবের তৈরি খাবার

pancakeS-FATtuesday

সকালের খাবারে একটি প্যানকেক কিংবা ফ্রেঞ্চ টোস্টের লোভ হয়তো আপনি সামলাতে পারবেন না কিন্তু আপনি ভয় পাচ্ছেন এই ধরনের খাবারের ফলে না আবার আপনার মেদভুঁড়ি বেড়ে যায়। কিন্তু আপনি জানেন কি? এইগুলো উচ্চ আঁশযুক্ত খাবার। তাই কোন ধরনের চিন্তা না করে খেতে পারেন এই ধরনের খাবার।

৪. বাদাম

আপনার তৈরি বিভিন্ন খাবারের মধ্যে বাদাম কিংবা কুড়মুড়ে বিস্কিটের সাথে বাদামের সংমিশ্রণ বেশ সুস্বাদু একটি খাবার। এটি একটি স্বাস্থ্যকর স্ন্যাক। এই ধরনের খাবার শরীরের বহিরাবরণ তৈরিতে সাহায্য করে থাকে।

৫. দুগ্ধজাত খাবার বা দই

scmp_15may05_ns_yogurt3.jpg_043f2985_4619179

দই একটি স্বাস্থ্যবান সুস্বাদু শারীরিক উপকারী খাবার। এটি আপনার পাকস্থলীর কার্যক্ষমতা বৃদ্ধিতে সাহায্য করে থাকে। কোষ্ঠকাঠিন্য দূর করে এবং সর্বোপরি এটি শরীরের মেদবৃদ্ধি করে না।

এছাড়া আর যে সকল খাবারগুলো আপনি নির্ভয়ে খেতে পারেন তারমধ্যে অবশ্যই রয়েছে বিভিন্ন ধরনের ফলমূল। যেমন ধরা যাক আপেল, আঙ্গুর, নাশপাতিসহ নানাবিধ ফল। তবে এর মধ্যে সবচেয়ে ভালো একটি ফল হলো কলা। এতে রয়েছে সকল ভিটামিন এবং পুষ্টি উপাদান।

তথ্যসূত্রঃ মাইন্ডবডিগ্রীন


সতর্কবার্তা:

বিনা অনুমতিতে দি ঢাকা টাইমস্‌ - এর কন্টেন্ট ব্যবহার আইনগত অপরাধ, যে কোন ধরনের কপি-পেস্ট কঠোরভাবে নিষিদ্ধ, এবং কপিরাইট আইনে বিচার যোগ্য!

May 22, 2014 তারিখে প্রকাশিত

আপনার মতামত জানান -

Loading Facebook Comments ...

মন্তব্য লিখতে লগইন করুন
Close You have to login

Login With Facebook
Facility of Account